পছন্দের ডোমেইন না পেলে করণীয় কি?

zubeen

New Member
#1
ওয়েবসাইটের জন্য নাম খুঁজে পাই না। নাম পেলে (ডট কম) ডোমেইন পাই না। আমরা প্রায় সবাই কমবেশি এই সমস্যার সম্মুখীন হই। সমস্যায় পড়ে অনেকেই ইচ্ছে না থাকা সত্যেও নামের সাথে বিডি লাগিয়ে দেই। আবার কেউ ডট এক্সওয়াইজেড/ ডট শপ ইত্যাদি ডোমেইন জুড়ে দেই। নতুবা নাম ছুড়ে ফেলে হতাশ হয়ে যাই এবং নতুন নাম খুঁজতে খুঁজতে ব্যবসা দাঁড় করার বয়স পার করে ফেলি।

সমধানের আগে কিছুউদাহারণ দেই। এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ ও জনপ্রিয় কোম্পানি, যাদের কোম্পানির নামের এর ‘ডট কম’ ডোমেইন নিজেদের হাতে নেই।

যেমন: ই-ভ্যালি, শপআপ, ই-কুরিয়ার, পেপারফ্লাই, নগদ, স্টারটেক, রবি, টেলিটক, রেপ্টো এদের সবার ডট কম ডোমেইনই আগে থেকে বুকড। অর্থাৎ অন্যরা ব্যবহার করছে। তাই বলে কি তাদের ব্যবসা বন্ধ? ‘ডট কম ডট বিডি’ দিয়ে তো দিব্বি কোটি কোটি টাকার ব্যবসায় করছে ‘ডট কম’ ডোমেইন ছাড়াই।

আগে থেকে ব্যবহার করছে এমন বা প্রিমিয়াম করে রাখা ডোমেইনও কিনতে পাওয়া যায়। সেক্ষেত্রে বড় অঙ্কের টাকার অফার করতে হয়। প্রায় সব ব্যক্তি/কোম্পানিই তাদের নামের বুকড ‘ডট কম’ ডোমেইন কেনার জন্য চেষ্টা করে। কিন্তু তাতেও কাজ না হলে পরে অন্য দিকে ঝুঁকতে হয়। সেক্ষেত্রে তাদের সবার পছন্দই (বাংলাদেশের ক্ষেত্রে) ‘ডট কম ডট বিডি’।


কেননা, ‘ডট কম ডট বিডি’ তে কান্ট্রি ডোমেইন দ্বারা ব্যবসার সেবার পরিধি প্রকাশ পায়। গুগল সার্চ রেজাল্টেও ভালো সুবিধা পাওয়া যায়। প্রিমিয়াম একটা ভাব থাকে। মনে হয় যেন সরকার কর্তৃক অনুমোদিত।


আরেকটি সুবিধা হলো কোম্পানির মূল নামটা কিন্তু ঠিকই থাকে। কোন সাফিক্স প্রিফিক্স যুক্ত করার প্রয়োজন পড়ে না।


সেজন্য ডট কমের পরেই ডট কম ডট বিডি, (প্রয়োজন মাফিক) ডট নেট, ডট এক্সওয়াইজেড এসব কমনগুলোকে অগ্রাধিকার দেয়া প্রয়োজন। অনেকে আছে যারা জানেইনা ডট কম/নেট/ওআরজি ছাড়া ডোমেইন হয়। তাদের কাছে ডট শপ, ডট কো নিতান্তই অন্যরকম লাগবে।


তবে হ্যাঁ, যদি একই দেশে একই নামের ডট কম কেউ ব্যবহার করে তবে সেই নামের ‘ডট কম ডট বিডি’ বা অন্য কোন টপ লেভেল ডোনেইন ব্যবহার না করাই শ্রেয়। উপরের উদাহারণ গুলো হুইজ ইনফো চেক করলে দেখবেন ‘ডট কম’ওয়ালারা সব বাইরের দেশের।

► লেখাটি কোর্সটিকা থেকে সংগৃহীত। ডোমেইন হোস্টিং সম্পর্কে আরো টিপস এন্ড ট্রিকস পেতে ভিজিট করতে পারেন কোর্সটিকা
 
Top